আইসিসি থেকে বিশাল বড় দুঃসংবাদ পেল নাসির বাদ পরলো দল থেকে

আইসিসি থেকে বিশাল বড় দুঃসংবাদ পেল নাসির বাদ পরলো দল থেকে

দুর্নীতির অভিযোগের তদন্তের পর নাসির হোসেনকে সবধরনের ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। সেই সঙ্গে ৬ মাসের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন তিনি। তার বিরুদ্ধে আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী তিনটি ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছিল। অপরাধ প্রমাণের পর তাকে এই শাস্তি দেয়া হয়েছে।

২০২১ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টেন লিগে অংশ নিয়েছিলেন। সেখানে সন্দেহভাজন ব্যক্তির কাছ থেকে উপহার নিয়েছিলেন বলে প্রমাণিত হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে জানানো হয়েছিল ২.৪.৩ ধারায় তদন্তের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাকে (ডিএসিও) ৭৫০ ডলারের বেশি অর্থ মূল্যের উপহার নেয়ার বিষয়ে তথ্য জানাতে ব্যর্থ হয়েছেন নাসির।

এ ছাড়া ২.৪.৪ ধারায় তদন্তের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিকে দুর্নীতি বা ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কোন প্রস্তাব তিনি পেয়েছিলেন কিনা, তাকে কোনভাবে প্ররোচিত করা হয়েছিল কিনা তা নিয়েও পরিস্কার ধারণা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন এই অলরাউন্ডার।

২.৪.৬ ধারায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় যে তিনি দুর্নীতিতে যুক্ত ছিলেন এমন তদন্তের বিষয়ে দুর্নীতির তদন্তে থাকা কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানাতে ব্যর্থ হয়েছেন বা কোন যুক্তি ছাড়াই তদন্তে সহযোগিতা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন।

দুর্নীতির অভিযোগে নাসিরের সঙ্গে অভিযুক্ত করা হয়েছিল আরও দুজনকে। তারা হলেন আরব আমিরাতের ক্রিকেটার রিজওয়ান জাভেদ ও সালিয়া সামান। বাকিদের মধ্যে আছেন কৃষ্ণা কুমার চৌধুরী। যিনি একটি ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকানার অংশীদার।

এর বাইরে পরাগ সংঘভিও একটি ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানার অংশীদার। আশহারর জায়েদি ব্যাটিং কোচ। সানি ধিলন সহকারী কোচ ও শাদাব আহমেদ টিম ম্যানেজার। এদিকে নাসির সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ২০১৮ সালে। বাংলাদেশের হয়ে ১৯টি টেস্ট, ৬৫টি ওয়ানডে ও ৩১টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন এই অলরাউন্ডার।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*